হিলি স্থলবন্দরে বাড়লো পেঁয়াজের দাম, সিন্ডিকেটকে দায়ী করছেন ব্যবসায়ীরা

গোলাম রব্বানী,হিলি প্রতিনিধি:

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি স্বাভাবিক থাকলেও হঠাৎ করে বেড়েছে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম। প্রকারভেদে কেজিতে দাম বেড়েছে ৪ থেকে ৫ টাকা। গত দুই দিন আগে যে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১৫ থেকে ১৬ টাকা কেজিতে সেই পেঁয়াজ এখন কেজিতে বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২১ টাকা দরে। পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে ভারত-বাংলাদেশ সিন্ডিকেটকেই দায়ী করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।
হিলি স্থলবন্দরে চাহিদার তুলনায় আমদানি কম হওয়ার কারনেই পেঁয়াজের দাম বাড়ার কথা জানালেন আমদানিকারকরা কিন্তু কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে আমদানি কমের অযুহাত দেখিয়ে সিন্ডিকেট করে দাম বাড়াচ্ছে আমমদানিকারকরা বলে দাবি করছেন স্থানীয় ব্যসায়ীরা।
হিলি কাষ্টমসের তথ্যমতে, চলতি সপ্তাহে দুই কর্ম দিবসে ভারতীয় ৭০ ট্রাকে ১ হাজার ৭ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে এই বন্দর দিয়ে।
হিলি স্থলবন্দরের  ব্যবসায়ী রায়হান জানান, পেঁয়াজের পাইকারী বাজার নিয়ন্ত্রণ করেন ওপারের রফতানিকারক দাদারা তারা যখন যে রেট বেধে দিবেন এ পারের আমদানিকারকরা সেই রেটেই পেঁয়াজ বিক্রি করে থাকেন। সামনে ঈদ তাই ওপারের দাদারা পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়ে মুনাফা নিচ্ছে। সরকার যদি আবার এই মুহুত্বে পেঁয়াজের উপর ট্যাস্ক ৫% থেকে বাড়িয়ে দেয় তা হলে আবার তারা বাজার ধরতে পেঁয়াজের রেট কমিয়ে দিবেন।
এদিকে স্থনীয় কাচামাল ব্যবসায়ী রহমান জানান, বর্তমানে হিলি দিয়ে ২০০ থেকে ২৫০ ডলারে পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে । কাস্টমস এ্যাসেসমেন্ট করছে ৩০০ ডলারে। আসছে ঈদে দেশে প্রচুর পরিমানের পেঁয়াজ প্রয়োজন এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে তারা প্রতিবছর পেঁয়াজের বাজার দর ও ডলার রেট বাড়িয়ে দিয়ে থাকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares