স্বামী ও প্রথম স্ত্রীর হাতেই মৃত্যু হয়েছে রোজিনার

এম.এ. জলিল রানা,জয়পুরহাট প্রতিনিধি: 

স্বামী ও প্রথম স্ত্রীর হাতেই মৃত্যু  হয়েছে রোজিনার।গ্রেফতারের পর পুলিশ হেফাজতে দোষ স্বীকার করলেন আসামী মেহেদী ও তার প্রথম স্ত্রী । দেড় লাখ টাকার জায়গায় ১ লাখ ২২ হাজার টাকা পরিশোধ দেখানোকে কেন্দ্র করে বিরোধের জের ধরে পাষণ্ড স্বামী তার প্রথম স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে দ্বিতীয় স্ত্রীকে গলা টিপে ও ছুরিকাঘাতে হত্যা করে।

হত্যাকাণ্ডের মাত্র ৬ ঘন্টার মাথায় পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া স্বামী-স্ত্রী থানা হেফাজতেই নিরদিধাই হত্যার দায় স্বীকারও করেছেন। স্বজন ও প্রতিবেশীরা এমন হত্যাকাণ্ডের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেছেন।জানা গেছে, দুই মাস আগে প্রেমের সম্পর্কে আক্কেলপুর উপজেলার হরিসাড়া গ্রামের মেহেদী হাসানের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী গুডুম্বা গ্রামের রোজিনার বিয়ে হয়।

বিয়ের সময় দেড় লাখ টাকা দেন- মোহরে চুক্তিবদ্ধ হয়ে বিয়ে করলেও সম্প্রতি কাজীকে ম্যানেজ করে ১ লাখ ২২ হাজার টাকা পরিশোধ দেখার বিষয়টি জানতে পারেন রোজিনা। আর এরপর থেকেই তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়।এক পর্যায়ে গত শুক্রবার রাতে রোজিনা তার স্বামীর বাড়িতে গেলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মেহেদী হাসান ও তার প্রথম স্ত্রী নূর জাহান বেগম বেধড়ক নির্যাতনের পর ছুরিকাঘাতে হত্যা করে।স্বজন ও প্রতিবেশীরা জানান, এমন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আমরা হতম্ভ। আসামীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করছি আমরা।

এ বিষয়ে জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ওবায়েদ জানান, হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার মাত্র ৬ ঘন্টার মধ্যেই ঘাতক স্বামী ও তার প্রথম স্ত্রীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।এ সময় হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা একটি ছুরিও উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতের বাবার দায়ের করা মামলায় তদন্ত সাপেক্ষে খুব দ্রুত আদালতে চার্জশিট দাখির করা হবে।’হত্যাকাণ্ডের পর ঘাতক স্বামী তার ব্যবহার করা ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সাতে করে মরদেহ এনে রোজিনার বাবার বাড়ির কাছেই রেখে যায়। এমন নৃশংস হত্যাকাণ্ডে এলাকা শোকাহত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares