সাড়ে ৩ বছর ধরে ২ কিশোরীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত ধর্মগুরু গ্রেফতার

সুজন চক্রবর্তী, আসাম( ভাতর) :  অবশেষে গ্রেফতার হলেন নাবালিকা ধর্ষনে অভিযুক্ত  ভারতের কর্ণাটকের মাইসুরুর লিঙ্গায়েত ধর্মগুরু শিবমূর্তি। এর আগে ঘটনা প্রকাশ‍্যে আসার পর শিবমূর্তিকে আটক করা হলেও পরে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু বৃহস্পতিবার ওই ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিস জারি করেছিল কর্ণাটক পুলিশ। তারপরই গভীর রাতে গ্রেফতার হন শিবমূর্তি মুরুগা শবনারু তিনি ছাড়াও এই মামলায় অভিযুক্ত আরও ৪ জন। প্রায় সাড়ে ৩ বছর ধরে ১৫ ও ১৬ বছরের দুই কিশোরীকে ধর্ষনে অভিযুক্ত  এই ধর্মগুরু। তাকে প্রাথমিকভাবে আটক করার পর ছেড়ে দেওয়া হলে বিক্ষোভে উত্তাল হয় মাইসুরু শহর।

অবশেষে বৃহস্পতিবার তাকে গ্রেফতার করা হয়। ১৪ দিনের জেল হেফাজতে প্রেরণ করা হয় অভিযুক্তকে। তার বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে। এদিন গ্রেফতারের পর শিবমূর্তিকে চিত্র দুর্গার সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন‍্য। পরে সেখান থেকে  জিজ্ঞাসাবাদের জন‍্য কোনও অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়া হয় অভিযুক্ত ধর্মগুরুকে।

মাইসুরু পুলিশের দায়ের করা অভিযোগে প্রকাশ, ওই দুই নির্যাতিতা কিশোরী মুরুঘা মঠ পরিচালিত স্কুলে পড়ত। ১৫ ও ১৬ বছরের ওই দুই কিশোরীকে প্রায় সাড়ে ৩ বছর ধরে ধর্ষন করেন শিবমূর্তি। পরে বেসরকারি এক সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করে সমস্ত কথা খুলে বলে নির্যাতিতারা।

এরপরই পুলিশে অভিযােগ দায়ের হয়। খবর প্রকাশ‍্যে আসতেই  জনমনে বিক্ষোভের সৃষ্টি হয়। কেবল শিবমূর্তি নয়, তাকে এই কাজে সাহায্য করার অভিযোগে অভিযুক্ত হন মঠেরই আর ৪জন। যদিও শিবমূর্তির দাবি, তিনি নির্দোষ। তার বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরেই চক্রান্ত  হচ্ছে বলেই দাবি করেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares