লালমোহনে সরকারি চাল চোর পেলেন ২০ হাজার টাকায় খালাস

ভোলা প্রতিনিধি:

ভোলার লালমোহনে আ’লীগ নেতার গোডাউনে ৪ ঘন্টার শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান ৪০ মে.টন চাল জব্দ করেছে স্থানীয় প্রশাসন।খাদ্য বিভাগের খালি ২০ টি বস্তা উদ্ধার। লোকাল বস্তার চাল জাতীয় ব্রান্ডে ডুকানোর অভিযোগ। সকল অভিযোগ থেকে ২০ হাজার ৫ শ টাকায় খালাস বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে লালমোহন আওয়ামীলীগ নেতা জসিম উদ্দিনকে।

জানা যায়,জেলার লালমোহন উপজেলায় ৪০ মেট্রিক টন চাল বোস্তা বদল করার অপরাধে উপজেলা আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জসিম উদ্দিনের গোডাউনে অভিযান চালানো হয়েছে। এসময় প্যাকেট পাল্টানোর অভিযোগে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।মঙ্গলবার বিকালে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও লালমোহন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান রুমি ভোক্তা অধিকার আইনে ওই অর্থদন্ড প্রদান করেন।

এদিকে অভিযোগ রয়েছে, প্রভাবশালী ওই চাল ব্যাবসায়ীর গোডাউনে অভিযান হলেও ভয়ে স্থানীয় সংবাদ কর্মীদের মধ্যে ভীতিকর অবস্থা বিরাজ করে। ভয়ে পেশাদার কোন সাংবাদিক সংবাদ পরিবেশন তো দূরের কথা তথ্য দিতেও অপারোগতা প্রকাশ করেন ।

লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবির জানান, মঙ্গলবার বিকালে একটি গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে খবর পেয়ে লালমোহন উপজেলার ওয়াষ্টেন পাড়া এলাকায় বিআরডিবির ভাড়া দেওয়া একটি গোডাউনে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও লালমোহন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান রুমির নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালায়। স্থানীয়রা জানান, ওই গোডাউনের মালিক চাল ব্যবসায়ী প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতা জসিমের। পুলিশ জানায় তারা গিয়ে দেখতে পান, ওই গুদামে কুয়াকাটা থেকে আনা একটি দিস মিলের চালের প্যাকেট থেকে নুরজাহান নামের একটি চালের বোস্তায় বদলানো হচ্ছিলো। এছাড়াও ওই গোডাউনে সরকারি খাদ্য বিভাগের ভিজিডির খালি ২৫টি বস্তা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় চালের বস্তা পাল্টানোর অপরাধে ভোক্তা অধিকার আইনে ২০ হাজার টাকা ও সরকারি খাদ্য বিভাগের ভিজিডির খালি ২৫টি বস্তা পাওয়ায় গোডাউনে থাকায় সরকারি আদেশ অমান্য করায় আরো ৫ শত টকাসহ মোট ২০ হাজার ৫শত টাকা জরিমানা করা হয়েছে বলে জানান ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও লালমোহন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান রুমি।

এদিকে আওয়ামীলীগ নেতাকে আইনের আওতায় না এনে অর্থ দন্ডের মাধ্যমে বেকসুর খালাস দেয়ায় ভোলা জুড়ে ব্যাপক সমোলোচনার ঝড় উঠে। লালমোহনে ৪ ঘন্টা ব্যাপী পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের স্বাসরুদ্ধকর অভিযান ৫ শ ও ২০ হাজার টাকার দন্ডে সীমাবদ্ধতা জেলায় চাল চোরদের আরো উৎসাহিত করবে বলে ধারনা করছেন ভোলার সকল শ্রেনী পেশার মানুষ ও পেশাজীবী সংঘঠনের নেতারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares