লালমোহনে করোনা আতঙ্কেও পরিসংখ্যান অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দায়িত্ব পালন

ভোলা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি:

নিরাপত্তা ঝুঁকির মধ্যেই করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশনা মেনে দাপ্তরিক দায়িত্বের পাশাপাশি দক্ষতা, অধ্যবসায় ও সুনামের সাথে সরকারি অন্যান্য দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। উপজেলা প্রশাসনকে নানাভাবে সহযোগিতাও করছেন তাঁরা।

গত ২৬ মার্চ ২০২০ খ্রি. তারিখ হতে দেশের করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় জরুরি ভিত্তিতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। কয়েক দফা বাড়িয়ে সে ছুটি আগামী ৩০ মে ২০২০ খ্রি. তারিখ পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। সম্ভাবনা রয়েছে এ ছুটি আরও বৃদ্ধি হওয়ার। এ ছুটির মধ্যে প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদেরকে কর্মস্থলে অবস্থান করে, সীমিত আকারে দাপ্তরিক দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের ব্যাপারে নির্দেশনা প্রদান করেছে। এছাড়াও ঈদ-উল-ফিতরের ছুটির মধ্যেও তাঁদেরকে কর্মস্থল ত্যাগ না করার ব্যাপারে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।জানা যায়, ভোলার লালমোহন উপজেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরাপত্তা ঝুঁকির মধ্যেও নিরলসভাবে সরকারি নির্দেশনা মেনে দায়িত্ব পালন করছেন। সীমিত আকারে দপ্তর খোলা রেখে স্থানীয় প্রশাসন, আয়তন, দারিদ্র্যসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদানে সর্বাত্মক সহযোগিতা করছেন তাঁরা। পাশাপাশি প্রত্যন্ত অঞ্চলে হতদরিদ্র মানুষের মাঝে মানবিক সহায়তা (ত্রাণ) বিতরণ, ভিজিডি, ভিজিএফ, খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি, ওএমএসসহ বিভিন্ন কার্যক্রম ও সরকারি বিভিন্ন ভাতা প্রদান কার্যক্রম তদারকির দায়িত্বও পালন করছেন তাঁরা।

উল্লেখ্য, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মানবিক সহায়তা সংক্রান্ত উপজেলা কমিটিরও গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বিবিএস-এর মাঠপর্যায়ে কর্মরত পরিসংখ্যান কর্মকর্তাবৃন্দ। প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করছেন উপজেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ে কর্মরত বিবিএস-এর তরুণ ও উদ্যোমী পরিসংখ্যান কর্মকর্তারা।

এব্যাপারে উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মো. মাইদুল ইসলাম বলেন, লালমোহন পরিসংখ্যান অফিসে ৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছে। যারা সরকারী নির্দেশনা মেনে সীমিত আকারে অফিস খোলা রেখে মাঠ প্রশাসনকে ইউনিয়ন অনুযায়ী হতদরিদ্র খানার সংখ্যা প্রদান, মানবিক সহায়তা কার্যক্রমের তালিকা যাচাই বাছাই, ওএমএমএস কার্যক্রমের তালিকা যাচাই বাছাই, আক্রান্ত করোনা রোগীর তথ্য সংগ্রহ ও নিয়মিতভাবে কৃষি উৎপাদন রিপোর্ট প্রদানসহ মাঠ প্রশাসনকে নিয়মিতভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছে। যদিও আমাদের নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে তবুও মাঠ প্রশাসনকে সহায়তা ও জনগনের যে কোনো সেবায় সদা প্রস্তুত রয়েছে লালমোহোন পরিসংখ্যান কার্যালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares