লকডাউনের এক মাসেই ভারতে ১২ কোটি মানুষ চাকরিচ্যুত

নিউজ ডেস্ক

কারোনাভাইরাসের কালো থাবায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব। ব্যতিক্রম নয় ভারতও। ফলে দেশটিতে করোনা প্রতিরোধে টানা লকডাউন চলছে। এই লকডাউনে স্থবির হয়ে গেছে স্বাভাবিক যাপন। থেমে গেছে অর্থনীতির চাকা। ফলে এর প্রভাব পড়েছে ভারতের চাকরির বাজারেও। 

সম্প্রতি মোদি সরকার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ‘কাউকে চাকরি থেকে তাড়াবেন না।’ কিন্তু কার্যক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে আরও বাড়ছে বেকারত্বের হার। ভারতে মোট ১১ কোটি  ৪০ জনের চাকরি লকডাউনের বাজারে অবলুপ্ত হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকোনমি (সিএমআইই)  সিএমআইই জানায়, সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ছোট ব্যবসায়ী ও দিনমজুররা। 

মঙ্গলবারের তথ্য অনুযায়ী, ৩ মে-র সপ্তাহে দেশে বেকারত্বের হার বেড়ে হয়েছে ২৭.১ শতাংশ, যেটা এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি। ভারতে শিল্পোত্পাদন কমেছে ১৬.৭ শতাংশ। 

ম্যানুফ্যাকচারিংয়ে উত্পাদন কমেছে ২০.৬ শতাংশ, বিদ্যুৎ উৎপাদন কমেছে ৬.৮  শতাংশ। ২৬ এপ্রিলের সপ্তাহে বেকারত্ব ছিল ২১.১ শতাংশ, তার আগের সপ্তাহে ২৬.২ শতাংশ।

প্রসঙ্গত, করোনার জেরে ভারতে ২৫ মার্চ থেকে চলছে লকডাউন। ধাপে ধাপে তা বৃদ্ধি করা হয়েছে। ১৮ মে থেকে যে চতুর্থ লকডাউন হবে, তা ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। তবুও দেশটিতে করোনার প্রকোপ কমেনি। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares