রাজশাহীতে ত্রাণ না পেয়ে হোটেল শ্রমিকদের বিক্ষোভ

রাজশাহী প্রতিনিধি:

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ত্রাণ না পেয়ে বিক্ষোভ করেছেন হোটেল শ্রমিকরা।বুুুধবার (১৫ এপ্রিল) সকালে রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌর সদরের শহীদ ফিরোজ চত্বরে অনাহারে ও অর্ধাহারে দিন কাটানো এসব শ্রমিকরা ত্রাণ  না পেয়ে বিক্ষোভ করে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ও জনসমাগম এড়াতে জেলা প্রশাসন পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপজেলার সকল হাট- বাজার, হোটেল ও রেস্টুরেন্টসহ সব ধরনের দোকান -পাট বন্ধ ঘোষণা করেছে তবে ওষুধ ও খাদ্য সামগ্রীর দোকান খোলা রেখেছে প্রশাসন । গত ২৩ দিন ধরে হোটেল মালিকরা তাদের হোটেল বন্ধ রাখার কারণে বেকার হয়ে পড়েছে হোটেল শ্রমিকরা। ফলে কর্মহীন ও খাদ্য সামগ্রী না পেয়ে পরিবার নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে এসব হোটেল শ্রমিকরা।

গোদাগাড়ী হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট শ্রমিক সমিতি জানায় শুধু গোদাগাড়ী পৌরসভায় প্রায় ১৫০ জন হোটেল শ্রমিক রয়েছে এবং উপজেলায় রয়েছে আরও প্রায় কয়েক শতাধিক শ্রমিক। সব হোটেল বন্ধ থাকায় কাজ বন্ধ হয়ে যায় তাদের। ফলে বাড়ীতে বেকার বসে থেকে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। অথচ গেল ২৩ দিন ধরে হোটেল বন্ধ থাকার পরেও কোন ধরনের সহায়তা পায়নি বলে অভিযোগ ।

এবিষয়ে হোটেল শ্রমিক আব্দুল্লাহ জানান, ‘হামরা কি মানুষ লই, হামার প্যাটে কি খাবার লাগে না, হামরা পরিবার নিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছি । সবাইকে সরকার ও চেয়ারম্যান নেতারা খাবার দিয়ে সহযোগিতা করেছে হামারাকে সহযোগিতা করে না । হামরা করোনায় না খাইয়া মরিবো যদি হামারঘে কোন ব্যবস্থা না করে।’

হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জিয়াউর রহমান, জানান,গোদাগাড়ীতে অনেক হোটেল শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছে। আমরা কাজ করতে না পারায় মানবেতর জীবন যাপন করছি। আমাদের কেউ কোনও সহযোগিতা করছে না। আমরা যার কাছে যাচ্ছি তারাই অন্য কাউকে দেখিয়ে দিচ্ছে। আমার এখন কার কাছে যাবো কোনও পথ না পেয়ে বসে আছি। সরকার আমাদের মুখের দিকে একটু তাকালেই না খেয়ে মোরবোনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares