যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি

যশোর প্রতিনিধিঃ

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ইতিমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন কারাগারের তিনজন বন্দি, জেলর ও তার স্ত্রী, ডেপুটি জেলর, কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজন স্টাফ। বর্তমানে তারা সেলফ কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।এ নিয়ে উদ্বিগ্ন গোটা কারা প্রশাসন। সংক্রমণ প্রতিরোধে তারা নানা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

সূত্র জানায়, ২০২০ সালে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করলে সরকার দেশে ২৬ মার্চ থেকে লকডাউন ঘোষণা করলে কারাগার কর্তৃপক্ষ বন্দিদের সাথে আত্মীয় স্বজনদের  দেখা কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। এছাড়া আদালত সীমিত আকারে চলায় কারাগারে নতুন আসামি আসা কমে যায়।

তারপরও কর্তৃপক্ষ করোনারোধে বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করে। এসব কার্যক্রমের মধ্যে ছিল কারাগারে নতুন আসা আসামিদের ভিন্ন সেলে রাখা, স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক নিরাপদ দূরত্ব মেনে আসামিদের রাখা। এ কারণে কারাগারে করোনার প্রথম ধাপে তেমন কোন প্রভাব পড়েনি। মার্চ মাস থেকে দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলে সার্বিক পরিস্থিতি আরো খারাপ হয়ে ওঠে।

এসময়ে কারাগারে মানা হয়নি তেমন কোন নিয়ম কানুন। এ কারণে বর্তমানে কারাগারে আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউএবার এর থেকে বাদ যায়নি কারারক্ষী, কর্মকর্তা ও আসামিরা।

বর্তমানে কারাগারের করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে বলে সূত্রটি জানিয়েছে। যা মোকাবেলা করতে কর্তৃপক্ষকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

সূত্র জানায়, বর্তমানে কারা অভ্যন্তরে তিনজন বন্দি করোনায় আক্রান্ত রয়েছেন। এদের মধ্যে দুইজন হাজতি ও একজন সাজাপ্রাপ্ত বন্দি।

এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বর্তমান জেলর ও তার স্ত্রী, তিনজন ডেপুটি জেলর ও কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজন কারা স্টাফ। বর্তমানে তারা কারা স্টাফ কোয়ার্টারে সেলফ কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

এ ব্যাপারে যশোর কেন্দ্রিয় কারাগারের জেলর তুহিন কান্তি খান বলেন, কারাগারে বন্দিদের সুরক্ষায় তারা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে তিনি ও তার স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া কারাগারের ৩ জন ডেপুটি জেলরসহ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা ও স্টাফ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।সংক্রমণ প্রতিরোধে তারা কারা অভ্যন্তরে নানা পদক্ষেপ নিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares