মোড়েলগঞ্জে মাদক বিক্রেতা আলাউদ্দিন বাহিনীর অত্যাচার,এমপির হস্তক্ষেপ কামনা

বাগেরহাট প্রতিনিধি: 

বাগেরহাট মোড়েলগঞ্জের হোগলাপাশার একাটি চিহ্নিত চক্রের মাদক ব্যাবসা, চাদাবাজী, ভুমি দখলসহ নানা অপকর্মে এলাকার মানুষ অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। ফ্রিষ্টাইলে মাদকের কেনাবেচা, অপরাধমূলক কর্মকান্ড এবং মাদক সেবনে আসা বহিরাগতদের  আনাগোনায় এলকার পরিবেশ পরিস্থিতি অস্বাভাবিক আকার ধারণ করেছে।
যার ফলে যুব সমাজ, শান্তি প্রিয় লোকজনকে রক্ষায় ব্যবস্থা দানে স্থানীয় সংসদ সদস্য বরাবরে আবেদন জানিয়েছেন হোগলাপাশা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুর রহমান মোল্লা।
স্থানীয়   সূত্রে   জানা   যায়,   মোড়েলগঞ্জ   উপজেলার   ৭   নং   হোগলাপাশা  ইউনিয়নের, হোগলাপাশা কালিখোলার তিন খালের মোহনা, গোবিন্দপুর
বহুমূখী   মাধ্যমিক   বিদ্যালয়ের   পিছনে   পশ্চিম   পাশের   বাগান, ছোট  হরিপুরের শিবচরন দাসের বাড়ি সংলগ্ন এসডিএফ অফিস, ফকিরহাটসহ এলাকার   বেশ   কয়েকটি   স্পটে   বাবুল   শেখের   ছেলে   আলাউদ্দিন   ওরফে   বাবা   আলাউদ্দিন   নেপথ্যে   থেকে   কয়েকজন   সহযোগীদের   দিয়ে   মাদক   ব্যাবসা  চালিয়ে আসছে বলে নাম না প্রকাশ করার শর্তে কয়েকজন জানিয়েছেন।
কিছুদিন আগে আলাউদ্দিনের সহযোগী সৈয়দ আলী খানের পুত্র মানিক খান ইয়াবাসহ ধরা পড়লেও ঘটনাস্থল থেকে সটকে পরে আলাউদ্দিন। এ ঘটনায়  এস আই রাজেত আলী বাদী হয়ে এ দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। চাদাবাজী, হামলা, লোকজনকে মারপিট, বসতবাড়ী দখল, লুটপাট এমনকি স্থানীয় ইউনিয়নের পরিষদ তালা দিয়ে আটকে দেওয়ার মত অভিযোগ রয়েছে আলাউদ্দিন বাহিনীর বিরুদ্ধে। চাদাবাজী, বাড়িঘর ভাংচুর, দখল ও ইয়াবা বিক্রীর   অভিযোগে   বাহিনী   প্রধান   এবং   তার   সাঙ্গপাঙ্গদের   বিরুদ্ধে একাধিক   মামলা   মোড়েলগঞ্জ   থানা   পুলিশ   ও   পি.বি.আই   এর   তদন্তাধীন  রয়েছে।
সম্প্রতি  দিনদুপরে   ফকিরহাটে এক   ব্যবসায়ীর   স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় আলাউদ্দিন তার সহযোগী সুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।আলেচিত   এ   মামলায়   এই   ২জনসহ   আরো   ৯জন   মিলিয়ে   ১১জনকে  হাজতবাসের  আদেশ দেন আদালত।  ১২ দিন  হাজত খেটে  জামিনে মুক্তি পেয়ে ফের অপতৎতা শুরু করে । গত ২৩ আগষ্ট বিকেলের দিকে তারা বাড়ীর সামনে রাস্তার উপর এসে মামলার বাদীর ছেলে আঃ রহমানের পায়ের রগ কেটে  দেবে   বলে  হুমকি  দেয়। এ   ঘটনায়   ২৭   আগষ্ট   বৃহস্পতিবার   বাগেরহাট  নির্বাহী ম্যাজিস্টেট আদলতে মামলা করেছেন গৃহিনী আইরিন পারভীন ।
স্থানীয়   সূত্রে   জানা   যায়   আলাউদ্দিন   বাহিনীর   এহেন   কার্মকান্ডের প্রতিবাদ করায় ইউ.পি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজাউল ইসলাম নান্নাকে পরিষদে তালাবদ্ধ করে রাখার মত অপরাধও করে আলাউদ্দিন বাহিনী।
তাদের কার্যকলাপের বিরুদ্ধে মামলা করলে পাল্টা
হয়রানী   মূলক,   মিথ্যা   ,   বানোয়াট   মামলা   সাজিয়ে   প্রতিপক্ষকে ফাসানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে বাহিনী প্রধান আলাউদ্দিন গং। এদের হয়রানী থেকে বাচার আকুতি জানিয়ে আতঙ্কগ্রস্থ   নির্যাতিত আঃ রহমান মোল্লা স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ স্থানীয় এমপির নিকট দায়ের  করিলে সাংসদ অভিযোগটির কার্যকরি ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মোড়েলগঞ্জ থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন।
এব্যাপারে মোরেলগঞ্জ থানা অফিসার ইনছার্জ মনিরুল ইসলাম জানান  অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত পূর্বক আইনানুক ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares