মান্দায় মারপিটে আহত একজনের মৃত্যু, শশুর ও পুত্রবধূ আটক

 

 

আপেল মাহমুদ:
নওগাঁর মান্দা উপজেলার বাদলঘাটা উত্তরপাড়া মসজিদের দানের টাকা ঘোষণা দেয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের মারপিটে আহত তোফাজ্জল হোসেন (৪০) মারা গেছেন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোরে মারা যান তিনি। নিহত তোফাজ্জল হোসেনের সহোদর মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মকলেছার রহমান একই হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।
শুক্রবার জুমার নামাজের পর সংঘর্ষের এ ঘটনায় নিহতের ছোটভাই হেলাল হোসেন বাদি হয়ে প্রতিপক্ষের আবদুল জলিলসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর অভিযান চালিয়ে আবদুল জলিল ও তার পুত্রবধূ নার্গিস বেগমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এদিকে আহত তোফাজ্জল হোসেনের মৃত্যুর সংবাদ শনিবার সকালে এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে গ্রামবাসি একত্র হয়ে আবদুল জলিলের বাড়ি ঘেরাও করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ ওই বাড়িতে অবরুদ্ধ অবস্থায় থাকা আবদুল জলিলের পুত্রবধূ নার্গিস বেগমসহ তার দুই শিশু সন্তানকে উদ্ধার করে। বর্তমানে ওই বাড়িতে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
মান্দা থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) মোজাফফর হোসেন বলেন, বর্তমানে ওই এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। গ্রেফতার দুইজনকে আদালতের মাধ্যমে নওগাঁ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, মান্দা উপজেলার ইউনিয়নের বাদলঘাটা উত্তরপাড়া জামে মসজিদের উন্নয়নকল্পে স্থানীয় দুইব্যক্তি ৮শ টাকা দান করেন। জুমার নামাজ শেষে মুসল্লিদের অবহিত করতে দানের এ টাকার ঘোষণা দেন মসজিদ কমিটির সেক্রেটারি মকলেছার রহমান। নামাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে গ্রামের আবদুল জলিলের ছেলে শাকিল হোসেন সেক্রেটারি মকলেছার রহমানকে লাঞ্ছিত করেন। এনিয়ে দুই পরিবারের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে মকলেছার রহমান (৪২) ও তোফাজ্জল হোসেন (৪০) গুরুতর জখম হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares