বগুড়ার শেরপুরে ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী অপহরণ মামলায় ঢাকায় গ্রেফতার ১

মিন্টু ইসলাম,শেরপুর(বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়া শেরপুরে কুসুম্বী ইউনিয়নের নয়া পাড়া নিবাসী পল্লী উন্নয়ন একাডেমী ল্যাবরেটরী স্কুল এন্ড কলেজের ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আসমাউল মিথীলা মিম (১৪) কে অপহরনের ঘটনায় বগুড়া শেরপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মোঃ আইয়ুব আলী, পিতা: ইস্কান্দার, মোঃ ইসব (২৬), পিতা- মোঃ আস্তাগবর, মোঃ ইউসুফ আলী, পিতা: মোঃ ইস্কান্দার, মোঃ রানা (২৮), পিতা- মোঃ আঃ হাই-দের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর মাতা অভিযোগ দায়ের করেন। মহামারী করোনার কারনে বর্তমানে বিদ্যালয় বন্ধ আছে।
শিক্ষার্থী বাড়িতেই অবস্থান করছিল। আইয়ুব আলী উক্ত শিক্ষার্থীকে পথে ঘাটে পেলেই বিভিন্ন অশ্লীল অঙ্গ ভঙ্গী করা সহ প্রেম ভালবাসার প্রস্তাব দিত। শিক্ষার্থী বিবাদী আইয়ুব আলীর প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় নানা ধরনের অশালীন কথা বলে এবং বিবাহের প্রলোভন দিয়ে ফুসলাইতে থাকে।
এমনকি বিবাদী আইয়ুব আলী যে কোন উপায়ে উক্ত শিক্ষার্থীকে বিবাহ করিবে বলে এলাকায় প্রচার চালাতে থাকে। এ ব্যাপারে আইয়ুব আলীকে শাসন করা হলে সে উক্ত শিক্ষার্থীকে বিবাহের প্রস্তাব দেয়। আইয়ুব আলী বিবাহিত হওয়ায় শিক্ষার্থীর বাবা মা বিবাহের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় আইয়ুব আলী ক্ষিপ্ত হয়ে ১৬/০৬/২০২১ ইং তারিখে বেলা অনুমান ১১.০০ ঘটিকার সময় উক্ত শিক্ষার্থী খাবার ক্রয় করতে দোকানে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হইলে শেরপুর থানাধীন কুসুম্বী ইউনিয়নের অন্তর্গত পুন্যতলা চার রাস্তার মোড়ে জনৈক আমিনুল এর হোটেলের সামনে পৌছিলে পূর্ব হতে ওৎ পেতে থাকা ১নং বিবাদী সহ অন্যান্য বিবাদী উক্ত শিক্ষার্থীকে একা পাইয়া বিবাহ করার উদ্দেশ্যে জোরপূর্বক অজ্ঞাত মাইক্রোবাস গাড়ীতে উঠাইয়া অপহরন করিয়া লইয়া যায়। পরবর্তীতে শেরপুর থানায় মামলা নং- ১১, তারিখ: ১৫/০৭/২০২১ ইং, ৭/৩০ ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, সংশোধনী ২০০৩ অপহরণ ও অপহরণে সহায়তাকারী।
উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)মোঃ শহিদুল ইসলামের সহযোগিতায় শেরপুর থানার চৌকস অফিসার এস.আই মোঃ হাসান আলী ও এস.আই সাঈফ ও নারী সহ সঙ্গীয় ফোর্স গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা সাভার ধানাধীন হেমায়েতপুর চেয়ারম্যান বাড়ী ভাঙ্গা ব্রীজ নামক এলাকা হতে অপহরণকারী এবং ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং আসামী আইয়ুব আলীকে  জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares