ফেনীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু,এলাকা লকডাউন

ফেনী জেলা প্রতিনিধি:
ফেনীতে করোনা উপসর্গ জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে এক ব্যক্তির (৬০) মৃত্যু হয়েছে। করোনা ভাইরাসের ডেঞ্জারজোন হিসেবে চিহ্নিত নারায়নগঞ্জ জেলায় একটি মাছের আড়তে কাজ করতেন। সদর উপজেলার ফাজিল পুর ইউনিয়নের শিবপুর এলাকার আবদুল্লাহ মৌলভীর নতুন বাড়ির বাসিন্দা। তার মৃত্যুর পর ওই এলাকা লকডাউন করেছে প্রশাসন।

এ ঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে আতংক দেখা দিয়েছে।স্থানীয় ফাজিলপুর ইউপি সদস্য মাহমুদুন নবী বাবর জানান, ২৪ মার্চ নুর নবী ও তার ছেলে নারায়নগঞ্জ থেকে গ্রামের বাড়িতে চলে আসেন। তারপর থেকে নুর নবীর জ্বর ও গলাব্যাথায় ভুগছিলেন। গত মঙ্গলবার তার জ্বর ও গলাব্যাথা ও শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে বাড়ি থেকে তার ছেলে এক চিকিৎসককে মোবাইলে যোগাযোগ করে চিকিৎসা নেয়ার চেষ্টা করে।

চিকিৎসক করোনার উপসর্গ থাকায় তাদের ঠিকানা জিজ্ঞেস করলে ওই ছেলে কথা শেষ না করে মোবাইল বন্ধ করে দেন। পরে চিকিৎসক স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সহযোগিতায় বাড়ি শনাক্ত করলে বুধবার রাতে প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ওই এলাকায় লকডাউন জারী করা হয়।স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপন জানান, ঘটনাটি জানতে পেরে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যাবার জন্য এ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হয়। কিন্তু তার পরিবার ও স্বজনদের বাধার মুখে এ্যাম্বুলেন্স ফিরিয়ে দেয়া হয়।

তারপরও বৃহস্পতিবার তার দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা জানান, আমরা যখন খবর পেয়েছি তখন ওই ব্যক্তির অবস্থা কিছুটা সংকটাপন্ন ছিলো। তখনই ওই ব্যক্তিকে আইসোলেশনে নিয়ে ভেন্টিলেটর দেয়ার প্রয়োজন মনে হয়েছিলো।

কিন্তু পরিবারে বাধার মুখে এ্যাম্বুলেন্স ফিরে আসে। তার নমুনা নিয়ে পরীক্ষাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। সন্ধ্যা সাতটার দিকে তার মৃত্যু হয়েছে। রাতেই বিশেষ ব্যবস্থায় তাকে দাফনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বর্তমানে ওই এলাকা লকডাউন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares