নিয়ামতপুরে মন্দির তৈরীর নামে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীকে উচ্ছেদের চেষ্টা

নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর নিয়ামতপুরে মন্দির তৈরীর নামে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীকে উচ্ছেদের চেষ্টা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ঐ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী।

থানায় লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের ধরমপুর গ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মৃত- কৈলাশ মাহাতোর স্ত্রী সন্ধ্যা রানী দীর্ঘ দিন যাবত খাস সম্পত্তির উপর বসবাস করে আসছিল। কিন্তু একই গ্রামের কিছু লোক মৃত- মহিলালের ছেলে শ্যামল মাহাতো (৩০), অমল মাহাতো (২৫), কৃষ্ণ মাহাতোর ছেলে রাজু মাহাতো, মৃ- মনতাজের ছেলে মেজের আলী (৩৫), মৃত- মহানন্দর ছেলে হরেন মাহাতো (২৮), মৃ- মালোন মাহাতোর ছেলে জগেস মাহাতো, মহন্ত মাহাতোর ছেলে উজ্জ্বল মাহাতো গত ১১ অক্টোবর সকাল ৮টায় জোর পূর্বক সন্ধ্যা রানীর গরুর রাখার ছাউনী ভেংগে ফেলে মন্দির তৈরীর জন্য বাঁশ দিয়ে দখল করে নেয়।

এ বিষয়ে সন্ধ্যা রানী বলেন, আমার পূর্ব পুরুষরা প্রায় ৭০ বছর যাবত এখানে বসবাস করে আসছে। গ্রামে আরো দুটি মন্দির থাকা সত্বেও গ্রামের কিছু অতি উৎসাহী ছেলেরা আমাকে ও আমার পরিবারকে উচ্ছেদ করার জন্য মন্দির তৈরীর নামে জায়গাটি দখল করে নেয়।

তিনি আরো বলেন, আমার এখন বাড়ীতে চলাফেরা করার মত কোন জায়গা নেই। আমাদের একমাত্র সম্বল গরু ছাগল রাখার জায়গা নেই। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।
এ বিষয়ে অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের কাউকে পাওয়া যায় নাই।

এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইন চার্জ হুমায়ন কবির বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares