ত্বকের যত্নে ভিটামিনের গুরুত্ব

সকালের ডাক

বর্তমানে নারী-পুরুষ উভয়ই নানাভাবে ত্বকের যত্ন নিয়ে থাকেন। তবে এ ক্ষেত্রে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরাই এগিয়ে। সৌন্দর্য ধরে রাখা বা বাড়িয়ে তোলার জন্য যে ভিটামিন সাহায্য করে তাকে বলে বিউটি ভিটামিন।

স্বাস্থ্য, সৌন্দর্য ও সুস্থতা অনেকটাই নির্ভর করে এসব ভিটামিনের ওপর।

আসুন জেনে নেই, সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে ভিটামিনের গুরুত্ব-

  • ভিটামিন সিঃ এই ভিটামিনটি ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। শুধু তাই নয়, এই ভিটামিনটি ত্বকের ক্যান্সারের হাত থেকে রক্ষা করে। সেই সঙ্গে মুখের কালো ছোপ কমাতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়। এক্ষেত্রে টক জাতীয় ফল, লেবু, কাঁচা লঙ্কা ইত্যাদি খাবার খেতে পারেন।
  • ভিটামিন বিঃ অনেকেই সাপ্লিমেন্ট হিসেবে নিয়মিত ভিটামিন ‘বি’ বা বি কমপ্লেক্স ক্যাপসুল খান। এটি কার্বোহাইড্রেট হজম করতে সাহায্য করে, স্নায়ুর কার্যকারিতা বাড়িয়ে দেয়। সৌন্দর্যের সঙ্গে হজমের সরাসরি সম্পর্ক আছে।

হজম ক্ষমতা বাড়াতে বি ভিটামিন সাহায্য করে। তাছাড়া চুল ঝরা কিংবা নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। অবসাদজনিত সমস্যা কাটায়। তাজা ফল, সবজি, শস্যদানা,  মাছ, ডিম ও পনিরে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন বি পাবেন।

  • ভিটামিন এঃ ত্বক যদি চির নতুন রাখতে চান, তাহলে ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবার খেতেই হবে। কারণ ভিটামিন এ, ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ যেমন পড়তে দেয় না, তেমনই ত্বককে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত রাখতেও সাহায্য করে। ভিটামিন এ, ফাইবোব্ল্যাস্ট উৎপন্ন করতে সাহায্য করে, যা ত্বককে সুন্দর রাখতে সাহায্য করে। মিষ্টি আলু, গাজর এবং সবুজ শাক সবজি খাবারে প্রচুর পরিমাণে এই ভিটামিনটি থাকে।
  • ভিটামিন ইঃ ভিটামিন ই কোষ সুরক্ষার কাজ করে। ত্বকের ভেতরে-বাইরে জীবাণু আসা-যাওয়ার মাঝখানে দেয়ালের মতো সুরক্ষা দেয়। ত্বক কুঁচকে যাওয়া রোধ করে। ত্বক সজীব ও সতেজ রাখে। ভিটামিন ই অ্যান্টি এজিং ক্রিম হিসেবেও পরিচিত। চুলের জন্যও ভালো। লাল আটার রুটি, ভুট্টা, সূর্যমুখীর তেল, বাদাম, টমেটো, অ্যাসপারাগাস এবং দানাজাতীয় শস্যেও পাওয়া যায় ভিটামিন ই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares