ক্রীড়াবিদ ও সংগঠকদের আর্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তর করলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী 

স্পোর্টস ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ক্রীড়াবিদ ও সংগঠকদের জন্য প্রদত্ত আর্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তর করেছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।
বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সভাকক্ষে ক্রীড়াবিদ ও সংগঠকদের মধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত ১ কোটি ২৭ লক্ষ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করেছেন প্রতিমন্ত্রী । এ সময়ে যুব ও ক্রীড়া সচিব মেজবাহ উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সবিশেষ কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, বিশ্বের ইতিহাসে আমাদের প্রধানমন্ত্রীর মতো মানবিক প্রধানমন্ত্রী আছে কি না আমার জানা নেই! এটি সত্যি নজিরবিহীন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে যে কোনো খেলোয়াড় বা সংগঠক যার জন্য সাহায্যের আবেদন করি, তিনি কখনো খালি হাতে ফেরান না।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশনকে সীডমানি হিসেবে ২০ কোটি টাকার চেক আমরা ইতিমধ্যে গ্রহণ করেছি। শুধু তাই নয়, মহিলা ক্রীড়া সংস্হার জন্য একটি ফান্ড গঠন করে দিবেন বলে জানিয়েছেন। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।
‘বঙ্গবন্ধু চার জাতি ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট- ২০২২’ এর চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়কে তিনি ৫ লাখ টাকা করে দেয়ার ঘোষণা দেন। এছাড়াও তিনি দেশে শারীরিকভাবে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন মানুষ ও শিশুদের জন্য ক্রীড়াসংশ্লিষ্ট ১০ কোটি টাকার একটি তহবিল গঠন করা হবে বলেও ঘোষণা দেন। অনুদানপ্রাপ্তদের মধ্যে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের ৩ জন গর্বিত সদস্য এনায়েতুর রহমান ২০ লক্ষ টাকা, প্রয়াত মাহমুদুর রশিদ এর মেয়ে ৩০ লক্ষ টাকা ও ছেলে ৩০ লক্ষ টাকা এবং স্বাধীন বাংলা দলের প্রয়াত আরেক সদস্য এ কে এম নওশেরুজ্জামানের স্ত্রী ২৭ লক্ষ টাকার চেক গ্রহণ করেন। এছাড়াও কৃতি ফুটবল খেলোয়াড় রিয়া সিনহার চিকিৎসা ব্যয় নির্বাহের জন্য তার পক্ষে তার পিতা ১০ লক্ষ টাকা, আবু জেহাদ জুয়েল ৫ লক্ষ টাকা, সফল যুব উদ্যোক্তা প্রীতি ইসলাম ৫ লক্ষ টাকা গ্রহণ করেন। চেক বিতরণ শেষে প্রতিমন্ত্রী বিশিষ্ট ক্রীড়া সাংবাদিক মোরসালিন আহমেদের “ভারোত্তোলনে বাংলাদেশ” শীর্ষক গ্রন্হের মোড়ক উন্মোচন করেন।
অনুষ্ঠানে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব পরিমল সিংহ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারুনর রশীদ, স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের সদস্য আবদুল গাফফার, বিশিষ্ট ক্রীড়া সাংবাদিক দিলু খন্দকার, জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত ফুটবলার শেখ আসলাম, মন্ত্রণালয় ও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিভিন্ন ক্রীড়া ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares