কুষ্টিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের হাতে ত্রাণ গ্রহীতারা শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত

সেলিম রেজা, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে হতদরিদ্র দিনমজুর ও অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের মাঝে সরকারী ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করার সময় ক্যামেরার দিকে না তাকানোর জন্য ত্রাণ গ্রহণকারী হতদরিদ্র মানুষকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিতকরেন ।অনেক হতদরিদ্র বৃদ্ধকে মারার জন্য উদ্যত হন ধাক্কাধাক্কি ও করেন ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন বিশ্বাস মহি।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে বিভিন্ন ওয়ার্ডের দরিদ্র, দিনমজুর, অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের মাঝে সরকারী ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করার সময় মহিউল ইসলাম বিশ্বাস নামে একজন ফেসবুক লাইভে আসেন ত্রাণ দেওয়ার ছবি ধারণ করার সময় মোবাইলের দিকে তাকাতে বলে ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন বিশ্বাস মহি।

কেউ না তাকালে তাকে থাপ্পড় মেরে মোবাইলের দিকে তাকাতে বাধ্য করা হয়। এসময় -থাপ্পড় খেয়ে একজনের মুখের মাস্ক মুখ থেকে পড়ে যেতেও দেখা যায়। বোয়ালিয়া ইউনিয় পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন বিশ্বাস মহির এমন কর্মকান্ডের ভিডিও ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে এই নিয়ে প্রশাসনসহ সর্ব মহলে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়।
এবিষয়ে বোয়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন বিশ্বাস মহি বলেন, কে বা কারা ত্রাণ বিতরণ করার সময় আমার ছবি তুলেছে।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে মহিউল ইসলাম সাথে যোগাযোগ করলে,
তিনি ভুল হয়েছে বলে ক্ষমা চান। এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, বিষয়টি ডিসি স্যারকে জানিয়েছি। ডিসি স্যার ডিডিএলজি স্যারকে তদন্ত দিয়েছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares