কলাপাড়ার নীলগঞ্জে জনশূন্য বাড়িতে আগুন লেগে ঘড় পুরে ছাই

প্রনব নারায়ন বিশ্বাস,কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের সলিমপুর গ্রামের আলাম গাজী (৫৫) এর খালি বাড়িতে আগুন লেগে সর্বস্ব শেষ হয়ে গিয়েছে। ২৯ আগষ্ট শনিবার রাত ৮ টার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা কলাপাড়া ফায়ার সার্ভিস অফিসে সংবাদ দিলে তারা এসে প্রায় আধা ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে সমস্ত ঘড়টি পুরে ছাই হয়ে যায়। তবে, জনশূন্য বাড়িতে কি কারনে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে তার সঠিক কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের সলিমপুর গ্রামের মৃত্যু ইসমাইল গাজীর পুত্র আলাম গাজী কিছুদিন আগে স্ব-পরিবারে গ্রাম ছাড়া হয়েছে। তারা কোথায় গিয়েছে তার সঠিক খবর কেহ বলতে পারেনি। ঘটনার রাতে হঠাৎ তার জনশূন্য বাড়ির ঘড়ে আগুন জ্বলে ওঠে। স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিস অফিসে সংবাদ দিলে তারা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে, ততক্ষনে সমস্ত ঘড়টি পুরে যায়। ঘড়ে থাকা আসবাবপত্র সহ কিছুই রক্ষা করা যায়নি। ক্ষতিগ্রস্ত আলাম গাজীর ভাই রহিম গাজী জানান, আমরা দুই ভাই পাশাপাশি আলাদা বাড়িতে থাকি। ঘটনার সময় আমি রাস্তায় ছিলাম। পরে সংবাদ পেয়ে এসে দেখি ঘড়টি আগুনে পুরছে। খালি বাড়িতে কিভাবে আগুন লাগলো তার কিছুই বুঝতে পারছি না। চোখের সামনে ঘরটি পুরে ছাই হয়ে গেলো, কিছুই রক্ষা করতে পারলাম না।
খালি বাড়িতে আগুন লাগা নিয়ে গ্রামবাসীদের মনে নানা ধরনের প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তবে, বাড়িটি খালি থাকায় এলাকার বকাটে ছেলেদের সিগারেটের আগুনে অথবা শত্রুতা বসত কেহ আগুন ধরাতে পারে বলে অনেকে ধারনা করা হয়েছে । আগুনে কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে তার সঠিক কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

এবিষয়ে কলাপাড়া ফায়ার সার্ভিস অফিসের ফায়ার লিডার আবুল কালাম আজাদ বলেন, আগুনের সংবাদ পেয়ে দ্রুত আমরা ঘটনাস্থলে আসি। প্রায় আধা ঘন্টা চেষ্টার পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। তবে, ঘরটি টিনের হওয়ায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পরে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই সব পুরে যায়। তিনি আরোও বলেন, কি কারনে আগুন লেগেছে তা এমুহূর্তে সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares