ইসরাইলের প্রতি সমর্থন জানিয়ে বিভিন্ন পোস্ট ভারতীয়দের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ফিলিস্তিনের ওপর ইসরাইলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে অধিকাংশ দেশের নাগরিক সাধারণ ফিলিস্তিনিদের প্রতি সহানুভূতি জানালেও ভিন্ন চিত্র ভারতে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এরই মধ্যে ইসরাইলের প্রতি সমর্থন জানিয়ে বিভিন্ন পোস্ট দিচ্ছেন ভারতীয়রা। এমনকি টুইটারে ট্রেন্ডিং টপিকে উঠে এসেছে ইন্ডিয়া স্ট্যান্ডস উইথ ইসরাইলে।

ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরাইলের চলমান বর্বরতার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ। পশ্চিমা দেশগুলোর সরকার ইসরাইলকে মদদ দিলেও সাধারণ মানুষের সহানুভূতি ফিলিস্তিনিদের দিকেই। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফিলিস্তিনিদের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে বিভিন্ন ধরনের পোস্ট দিচ্ছেন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ।

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের বর্বরতার প্রতিবাদে বিশ্বের শান্তিপ্রিয় মানুষ ফুঁসে উঠলেও ভারতের বিশাল একটি অংশ সরাসরি সমর্থন করছে ইসরাইলকে। ফেসবুক কিংবা টুইটার সব জায়গাতেই সরব হয়েছেন অনেক ভারতীয়। শুধু তাই নয় ইসরাইলের প্রতি সমর্থন জানিয়ে ‘ইন্ডিয়া স্ট্যান্ডস উইথ ইসরাইল’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে ট্রেন্ডিং টপিকে পরিণত করেছেন তারা। ইসরাইলকে সমর্থন দিয়ে বেশ কয়েকটি হ্যাশ ট্যাগ টুইটারের ট্রেন্ডিং টপিকের একেবারে ওপরের দিকে অবস্থান করে নিয়েছে।

‘ইন্ডিয়া স্ট্যান্ডস উইথ ইসরায়েল হ্যাশট্যাগ দিয়ে টুইট করা হয়েছে দেড় লাখের বেশি। ‘ভারত উইথ ইসরায়েল ইরফান’ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে ভারতে এ পর্যন্ত ৪৫ হাজারের বেশি টুইট করা হয়েছে। মূলত ভারতের জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার ইরফান পাঠান ফিলিস্তিনে ইসরাইলি আগ্রাসনের প্রতিবাদ জানিয়ে টুইট করেন। আর সেখান থেকেই ইরফানের সমালোচনায় মেতে ওঠেন অনেক ভারতীয়।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহুর ছবির সঙ্গে ‘বেস্ট ফ্রেন্ড’, ‘এ দোস্তি নেহি তোড়েঙ্গে’ সহ বিভিন্ন ক্যাপশন দিয়ে ইসরাইলের প্রতি সমর্থন জানাচ্ছেন ভারতীয়রা।

ভারতের সঙ্গে ইসরায়েলের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নতুন কিছু না হলেও সাধারণ ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরাইলের ঘৃণ্য আক্রমণে সমর্থন জানানো উগ্র দৃষ্টিভঙ্গির বহিঃপ্রকাশ বলছেন বিশ্লেষকরা।

এদিকে, ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে ভারতকে ইসরায়েল সমর্থন করলেও গাজায় হামলার বিষয়ে এখনো পরিষ্কার করে কিছু বলেনি নয়াদিল্লি। তবে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন উত্তেজনায় ‘গভীর উদ্বেগ’ জানিয়েছে ভারত সরকার। দু’পক্ষকেই সহনশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত ভারতীয় দূত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares