ইমরান খানের লং মার্চ নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান সরকার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাজধানী ইসলামাবাদ অভিমুখে বুধবার লং মার্চের ডাক দিয়েছিলেন পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেই লং মার্চ নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সরকার। ইমরান খানের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ধরপাকড় অভিযান চালানোর সময় গুলিতে পুলিশের এক সদস্য নিহত হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর মঙ্গলবার ইসলামাবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ। সেই সংবাদ সম্মেলনে ইমরান খানের ইসলামাবাদ অভিমুখে ডাকা লং মার্চে নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেন তিনি। খবর রয়টার্স, দ্য ডনের।

দেশটিতে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংকট গভীর হওয়ায় নতুন নির্বাচনের দাবিতে ইসলামাবাদে ওই লং মার্চের ডাক দিয়েছিলেন ইমরান। দেশটির তথ্যমন্ত্রী মরিয়ম আওরঙ্গজেব বলেছেন, “ইমরান খানের রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) একজন কর্মকর্তার বাড়িতে যাওয়া এক পুলিশ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। পরে পিটিআইয়ের ওই কর্মকর্তা ও তার বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।”

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সানাউল্লাহ বলেছেন, “কাউকে রাজধানী অবরোধ করতে দেওয়া হবে না। একই সঙ্গে তাদের দাবি-দাওয়াও মেনে নেওয়া হবে না। পিটিআইয়ের লং মার্চে বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।”

তিনি আরও বলেন, “ইমরান খান এবং তাঁর সহযোগীরা এই লং মার্চে রক্ত বন্যা বয়ে যাবে বলে হুমকি দিয়েছেন। ২০১৪ সালে একবার চার মাসের বেশি সময় ধরে এ ধরনের অবরোধ কর্মসূচির মাধ্যমে দেশকে পঙ্গুকে করে দিয়েছিলেন ইমরান খান। ২০১৩ সালের নির্বাচনে কথিত কারচুপির প্রতিবাদে হাজার হাজার নেতাকর্মীকে নিয়ে সমাবেশ করেছিলেন তিনি। সেই সময় তাঁর সমর্থকরা পুলিশের ওপর হামলা করেছিল এবং সংসদ ভবন ও প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে হামলার হুমকি দেওয়া হয়েছিল।”

পাকিস্তানের এই মন্ত্রী বলেন, “তারা শয়তানি পরিকল্পনা নিয়ে ইসলামাবাদে আসছে।” গোয়েন্দা তথ্যে পিটিআইয়ের লং মার্চ থেকে নাশকতার পরিকল্পনা উঠে এসেছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী সানাউল্লাহ।

এদিকে পুলিশ বলছে, পিটিআইয়ের লং মার্চকে কেন্দ্র করে সহিংসতার আশঙ্কায় ইসলামাবাদ কর্তৃপক্ষ শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক বন্ধ করে দিতে শুরু করেছে। এ ছাড়া গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় অতিরিক্ত পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীও মোতায়েন করা হয়েছে।

ইমরান খান পিটিআইয়ের নেতাকর্মীদের বুধবার ইসলামাবাদে জড়ো হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। সরকারি সিদ্ধান্তের পরপরই সংবাদ সম্মেলন করে তিনি। এ সময় ইমরান বলেন, “আপনারা পারলে আমাদের থামানোর চেষ্টা করুন।” শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করা তার অধিকার, যার অনুমতি না দেওয়া বেআইনি বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares