আইএইএতে অভিযোগ ঝুলে থাকা অবস্থায় চুক্তি সম্ভব নয়: রায়িসি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইরানের প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি পশ্চিমা দেশগুলোকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন, আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা বা আইএইএতে ইরানের বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের চুক্তি করা সম্ভব নয়।তিনি আরো বলেছেন, ইউরোপীয় দেশগুলোকেও একথা প্রমাণ করতে হবে যে, তারা আমেরিকার প্রভাবমুক্ত হয়ে স্বাধীন পররাষ্ট্রনীতি অনুসরণ করে।খবর পার্সটুডের।

তিনি নিউ ইয়র্কে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরনের সঙ্গে এক বৈঠকে একথা জানিয়ে দিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট রায়িসি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম বার্ষিক অধিবেশনে যোগ দিতে সোমবার নিউ ইয়র্কে পৌঁছেছেন।

মঙ্গলবার রাতে ম্যাকরনের সঙ্গে বৈঠকে রায়িসি বলেন, ইরান পাশ্চাত্যের সঙ্গে একটি ন্যায়ভিত্তিক ও টেকসই চুক্তি চায়; তবে সেজন্য তেহরানের বিরুদ্ধে আইএইএতে আনা ভিত্তিহীন অভিযোগগুলোর পরিসমাপ্তি টানতে হবে। তিনি পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার একতরফাভাবে বেরিয়ে যাওয়ার সমালোচনা করে বলেন, ইউরোপীয় দেশগুলো সে সময় আমেরিকার প্রভাব থেকে বের হয়ে ইরানের সঙ্গে করা পরমাণু চুক্তির বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে পারেনি।

ইব্রাহিম রায়িসি বলেন, কাজেই আমেরিকা যাতে আবার পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যেতে না পারে সেজন্য সম্ভাব্য চুক্তিতে ওয়াশিংটনের জন্য শাস্তিমূলক ব্যবস্থা রাখতে হবে। তিনি বলেন, ইরান এ ব্যাপারে যে গ্যারান্টি চায় তা অযৌক্তিক নয়।

ইরানের সঙ্গে পরমাণু আলোচনা চলতে থাকার একই সময়ে ফ্রান্সসহ তিন ইউরোপীয় দেশ সম্প্রতি আইএইএতে ইরানের বিরুদ্ধে যে বিবৃতি প্রকাশ করেছে তার তীব্র সমালোচনা করে রায়িসি ম্যাকরনকে বলেন, এ ধরনের অগঠনমূলক কাজ করে চুক্তির আশা করা বাতুলতা ছাড়া আর কিছু নয়।

সাক্ষাতে ফরাসি প্রেসিডেন্ট চলমান পরমাণু আলোচনার ব্যাপারে কিছু প্রস্তাবনা তুলে ধরেন। ম্যাকরন স্বীকার করেন, ইরান পরমাণু সমঝোতা পুরোপুরি মেনে চলছে বলে আইএইএ নিশ্চিত করার পরও মার্কিন সরকার ২০১৮ সালে একতরফাভাবে এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যায় এবং ইউরোপ আমেরিকাকে বাদ দিয়ে এটি বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হয়।তিনি ইরানের প্রেসিডেন্টকে প্যারিস সফরের আমন্ত্রণ জানিয়ে বলেন, ইরান ও ফ্রান্সের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক শক্তিশালী করার সুযোগগুলোকে দু’দেশেরই কাজে লাগানো উচিত।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares