অদ্ভুৎ ভাবনার কারণ জানালেন সারা

বিনোদন ডেস্ক:


বয়স মাত্র ৯। তখন অভিনেত্রী সারা আলি খানের মা, বাবা অর্থাৎ সইফ আলি খান ও অমৃতা সিংয়ের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। যদিও বিচ্ছেদের পরেও সারা এবং ইব্রাহিমকে সমান গুরুত্ব ও সমান দিয়ে বড় করে তুলেছেন সইফ ও অমৃতা। তা নিয়ে কোনও আক্ষেপ ছিল না সারার।

তবে মা, বাবার অভিনীত সিনেমা দেখে এমন কিছু ধারণা তৈরি হয়েছিল, তা নিয়ে সর্বক্ষণ অস্বস্তিতে থাকতেন সারা। কারও সঙ্গে শেয়ার করতে পারতেন না।  সম্প্রতি হার্পার বাজার-এর সাক্ষাৎকারে ছোটবেলার অদ্ভুত ভাবনার কথা শেয়ার করলেন সারা। জানালেন, এক সময়  তাঁর ধারণা ছিল মা, বাবা দুজনেই খুব খারাপ মানুষ। দুজনেই সমাজ বিরুদ্ধ কাজের সঙ্গে যুক্ত।

তাঁর ধারণা ছিল, বাবা সইফ সর্বক্ষণ অশ্রাব্য গালিগালাজ করেন মানুষকে। তিনি গুন্ডা হবেন হয়তো। অন্যদিকে মা অমৃতা কোনও পর্নোগ্রাফি সাইট চালান। এই ধারণার পরেও আরও অস্বস্তি বাড়িয়ে দিয়েছিল একটি নির্দিষ্ট ঘটনা।  সারা জানান, সইফ অভিনীত ‘ওমকারা’ এবং অমৃতার ‘কলিযুগ’ সিনেমা দেখে এই ধারণা তৈরি হয়েছিল। ‘ওমকারা’তে বাবার অভিনয় তাক লাগালেও প্রচুর গালিগালাজ করেছিলেন তিনি। অন্যদিকে ‘কলিযুগ’ সিনেমায় কুখ্যাত পর্নোগ্রাফি সাইটের কর্ণধার হিসেবে দেখানো হয়েছিল অমৃতাকে।

এই সিনেমা দুটির জন্য এক অ্যাওয়ার্ডের অনুষ্ঠানে ‘সেরা ভিলেন’-এর চরিত্রে অভিনয়ের জন্য নমিনেশনে নাম ছিল দুজনের।

সারা সাক্ষাৎকারে জানান, অনেক বয়স হওয়ার পর তিনি বুঝতে পারেন আসলে দুর্দান্ত অভিনেতা ছিলেন তাঁর মা, বাবা। বাস্তবে ততটাও খারাপ নন।সূত্র: আজকাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares